বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৮, ০৮:৫৩ অপরাহ্ন

ঝিনাইগাতীতে পাহাড়ী ঢলে শতশত মানুষ পানিবন্দী

ঝিনাইগাতীতে পাহাড়ী ঢলে শতশত মানুষ পানিবন্দী

SUMESSORY copy

ঝিনাইগাতী প্রতিনিধি
গত দু’দিনের অবিরাম বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের পানিতে শেরপুরের সীমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। পানি বন্দী হয়ে পড়েছে বিভিন্ন গ্রামের শতশত মানুষ। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের পানির তোড়ে মহারশি নদী’র রামেরকুড়া, দিঘীরপাড় ও বনগাওসহ বিভিন্ন স্থানে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধ ভেঙ্গে আবাদি জমিতে বালুর স্তর পড়েছে। গত মঙ্গলবার থেকে দু’দিনের অতিবর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা মহারশি, কালঘোষা, সোমেশ্বরী ও মালিঝিনদীর পানির তোড়ে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে রাস্তা-ঘাট ভেঙ্গে অভ্যান্তরীণ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। মহারশি নদীর রামেরকুড়ার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাধ ভেঙ্গে উপজেলা পরিষদ চত্বর ও নিচ তলায় বিভিন্ন অফিস কক্ষে পানি প্রবেশ করে। কম্পিউটারসহ বিভিন্ন মালামাল ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সোমেশ্বরী নদীর পানির তোড়ে ধানশাইল, কুচনিপাড়া সড়কের বাগেরভিটা এলাকায় ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়ে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। পানিতে তলিয়ে গেছে অসংখ্য পুকুর, সাক-সবজির বাগান ও কৃষকদের বীজতলা। অতি বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলের পানিতে উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন জলমগ্ন হয়ে পরার পাশাপাশি বিভিন্ন গ্রামের হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। নিম্নাঞ্চলের অনেক গ্রামের লোকজন নৌকা ও কলার ভেলায় যাতায়াত করতে হচ্ছে। ইউএনও মোজাম্মেল হক উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাদশা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এসএমএ ওয়ারেজ নাইম, সাধারন সম্পাদক আমিরুজ্জামান লেবুসহ আওয়ামীলগ নেতৃবৃন্দ পাহাড়ী ঢলে ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন।


© All rights reserved © 2017 BanglarKagoj.Net
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com