শনিবার, ২০ জানুয়ারী ২০১৮, ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন

ইমরুল-মুমিনুলে লড়ছে বাংলাদেশ

ইমরুল-মুমিনুলে লড়ছে বাংলাদেশ

tamim-imrul

স্পোর্টস ডেস্ক :

৬ উইকেটে ৪৬২ রান করে ভারত ইনিংস ঘোষণা করার পর ব্যাটিংয়ে নেমেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। শুরুতে তামিম ইকবালের উইকেট হারালেও দ্বিতীয় উইকেটে ইমরুল কায়েস ও মুমিনুল হকের ব্যাটিংয়ে দারুণ লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে টাইগাররা।

প্রথম ইনিংসে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস শুরু থেকে সাবলীল ব্যাটিং শুরু করলেও হঠাৎ ধৈর্য্যচ্যুতি ঘটে তামিমের। বাংলাদেশের হয়ে এদিন সর্বোচ্চ টেস্ট রানের মালিক বনা এই ওপেনার অশ্বিনের বলে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে পড়েন। অশ্বিনের বল ডাউন দ্য ট্র্যাকে এসে খেলতে গিয়ে উইকেটরক্ষক হৃদ্ধিমান সাহার স্ট্যাম্পিংয়ে পরিণত হন তিনি। ২১ বলে ১৯ রান করে আউট হন তামিম।

২৭ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর দ্বিতীয় উইকেটে মুমিনুল হককে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ওপেনার ইমরুল কায়েস। তবে প্রথম তিন দিনের মতো টেস্টের চতুর্থ দিনেও বৃষ্টি হানা দেয়। সকাল ১০টা ২৭ মিনিটে বৃষ্টির কারণে আম্পায়ার খেলা স্থগিত রাখেন। তবে বৃষ্টির কারণে বেশিক্ষণ খেলা বন্ধ থাকেনি। ১৩ মিনিট পর ১০টা ৪০ মিনিটে ফের খেলা শুরু হয়।

বৃষ্টির পর খেলা ‍শুরু হলে দুর্দান্ত প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ইমরুল ও মুমিনল। ৭৫ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করা ইমরুল বাংলাদেশের হয়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। তার সঙ্গী মুমিনুল হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করতে পারলে রেকর্ডবুকে নাম খোদাই করতে পারবেন। টানা ১২ টেস্টে হাফ সেঞ্চুরি করার বিশ্বরেকর্ডে এবি ডি ভিলিয়ার্সকে স্পর্শ করতে পারবেন তিনি।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ১ উইকেটে ১০২ রান। ইমরুল কায়েস ৫৩ ও মুমিনুল হক ২৯ রান নিয়ে ক্রিজে রয়েছেন।

বৃষ্টির কারণে প্রায় দুদিন ভেসে যাওয়ায় নিজেদের ইনিংসকে আর দীর্ঘায়িত করেনি বিরাট কোহলির ভারত। আগের দিনের ৬ উইকেটে ৪৬২ করা ভারত ইনিংস ঘোষণা করেছে। ফলে বাংলাদেশ দল প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমেছে।

বুধবার টেস্টের প্রথম দিন বৃষ্টির কারণে ৫৬ ওভারের বেশি খেলা হয়নি। দ্বিতীয় দিন তো বৃষ্টির কারণে কোনো বলই মাঠে গড়াতে পারেনি। আর শুক্রবার চার দফা বৃষ্টির কারণে ৪৭.৩ ওভার খেলা হয়।

প্রথম ইনিংসে ভারতের ৬ উইকেটে ৪৬২ রানের পেছনে বড় অবদান রাখেন দুই ওপেনার  শেখর ধাওয়ান ও মুরালি বিজয়। ধাওয়ান ১৭৩ ও বিজয় করেন ১৫১ রান। এছাড়া আজিঙ্কা রাহানে ৯৮ রানের দর্শনীয় ইনিংস উপহার দেন।

বাংলাদেশের হয়ে সাকিব আল হাসান ৪টি এবং জুবায়ের হোসেন ২টি উইকেট লাভ করেন। ৪ উইকেট নেয়ার পথে প্রথম বাংলাদেশি বোলার হিসেবে ঘরের মাঠে ১০০ টেস্ট উইকেট নেয়ার কৃতিত্ব গড়েন সাকিব আল হাসান।


© All rights reserved © 2017 BanglarKagoj.Net
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com